শ্রীপুরে টিসিবির পণ্য পেতে কার্ডধারীদের ভোগান্তি। Magura news

মহসিন মোল্যা, বিশেষ প্রতিবেদক-

শ্রীপুরে সরকারি সংস্থা ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশ (টিসিবি) ট্রাক সেলের পণ্য পেতে ভোগান্তিতে পড়েছে টিসিবি কার্ডধারীরা। শত শত কার্ডধারীরা সারাদিন আশায় আছে কখন হাতে পাবে তাদের কাঙ্খিত পণ্য। উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় নারী-পুরুষ, বয়োঃবৃদ্ধ, প্রতিবন্ধীরা সারাদিন বসে থেকে দিন শেষে নিরাশ হয়েই বাড়িতে ফিরতে দেখা গেছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ২২ জুন থেকে টিসিবি পণ্য দেওয়ার কথা থাকলেও ৬ জুলাই পর্যন্ত উপজেলায় মাত্র তিন দিন টিসিবি পণ্য দেওয়া হয়েছে। টিসিবি পণ্যর মধ্যে রয়েছে ২ কেজি সয়াবিন তেল, ২ কেজি মসুর ডাল ও ১ কেজি চিনি। উপজেলার অনেকেই টিসিবি পণ্য পেলেও অনেকে এখনো পায়নি।

শ্রীপুর ইউনিয়নের দায়িত্বপ্রাপ্ত ট্যাগ অফিসার হারুন-অর-রশিদ বলেন, ২২ জুন থেকে ২৮ জুন পর্যন্ত টিসিবি পণ্য বিতরণের জন্য আমাকে চিঠি দেওয়া হয়। এ সময়ের মধ্যে দুইবার টিসিবি পণ্য বিতরণ করা হয়েছে। পরবর্তীতে আর কোন চিঠি আসেনি। আমি ও জানিনা টিসিবি পণ্য আবার কবে দিবে? ডিলারের ফোন করার কথা থাকলেও আজ পর্যন্ত আমাকে ফোন করেনি। তবে মানুষের খুব ভোগান্তি হচ্ছে।

ভুক্তভোগীরা বলেন, আমরা ৭-৮ দিন ধরে টিসিবির পন্য নেওয়ার জন্য আসছি। কাজ কর্ম ফেলে রেখে সারাদিন বসে থেকে টিসিবি পন্য না নিয়েই বাড়িতে যাচ্ছি। দূর থেকে যারা আসছি তাদের তো গাড়ি ভাড়া আছেই। দিবে না বলে দিবে, আমরা আসবো না। কবে দিবে তারা সেটাও বলে না।

উপজেলার কয়েকজন ডিলারের সাথে কথা বলে জানা যায়, আমাদের যেদিন টিসিবি পণ্য দেওয়ার কথা থাকে আমাদের ডিসি অফিস থেকে জানানো হয়। আমরা ট্যাগ অফিসারকে জানাই। এখানে আমাদের কোন হাত নেই। তবে যেদিন টিসিবি পণ্য বিতরণের দিন থাকে আগে থেকেই জানানো হয়। তাদের উচিত যেদিন আমরা পণ্য বিতরণ করবো সেদিনই আসা।

মাগুরা জেলা প্রশাসক ড. আশরাফুল আলম বলেন, মাগুরা জেলার প্রতিটি উপজেলায় এ পণ্য বিতরণ করা হচ্ছে। ফলে টিসিবি পণ্য ব্যাপক পরিসরে দেওয়ায় এবং সয়াবিন তেল সংকটের কারণে একটু সমস্যা হচ্ছে। আশা করছি ঈদের আগেই সকল কার্ডধারীদের মাঝে এ পণ্য বিতরণ করা হবে।

August ২০২২
Mon Tue Wed Thu Fri Sat Sun
« Jul    
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  

ফেসবুকে আমরা

বিভাগ

দিনপঞ্জিকা

August ২০২২
Mon Tue Wed Thu Fri Sat Sun
« Jul    
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  
%d bloggers like this: