মাগুরার হাসপাতাল ক্লিনিকগুলো এখন মায়েদের দখলে

মাগুরানিউজ.কমঃ

file.jpegtyut

মাগুরার হাসপাতাল ক্লিনিকগুলো এখন মায়েদের দখলে। ঠান্ডা জনিত রোগের প্রকোপ বৃদ্ধি পাওয়ায় শতশত শিশু ডায়রিয়া ও নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হয়ে ভর্তি হচ্ছে হাসপাতাল ও বিভিন্ন ক্লিনিকে।

মাগুরায় কুয়াশা ও ঠান্ডায় শিশুদের মধ্যে ঠান্ডা জনিত রোগের প্রকোপ বৃদ্ধি পেয়েছে । ৩ শতাধিক শিশু ডায়রিয়া ও নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতাল ও বিভিন্ন ক্লিনিকে ভর্তি হয়েছে । মাগুরা সদর হাসপাতালের ১০ বেডের শিশু ওয়ার্ডে শুক্রবার পর্যন্ত ১৬০ টি শিশু ভর্তি রয়েছে । প্রতিদিন গড়ে ৪০ থেকে ৪৫ টি শিশুকে নিয়ে তাদের অবিভাবকরা হাসপাতালে আসছেন চিকিৎসা নিতে । এছাড়া অনেকে ক্লিনিকে চিকিৎসা নিচ্ছে । ডাক্তারের চেম্বারে শিশুরোগীদের প্রচুর ভীড় দেখা যায় । আক্রান্ত শিশুদের বয়স ৩ মাস থেকে ৬ বছরের মধ্যে।

চিকিৎসকরা জানান, প্রচন্ড কুয়াশা ও ঠান্ডর কারনে শিশুরা ডায়রিয়া ও নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হচ্ছে । মাগুরা সদর হাসপাতালের ১০ বেডের শিশু ওয়ার্ডে ১৬০ টি শিশু ভর্তি রয়েছে । ফলে বেডের অনেক শিশুরোগীকে মেঝেতে থাকতে হচ্ছে । হটাৎ করে প্রচন্ড কুয়াশা ও শীত পড়ায় এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে । এছাড়া বৃদ্ধরাও ঠান্ডাজনিত রোগে আক্রান্ত হচ্ছে ।

ঘনকুয়াশার কারনে সুর্য উঠে দুপুর ১ টার দিকে । কুয়াশার কারনে যানবাহন চলাচলে মারাত্বক ব্যাঘাত ঘটে । কুয়াশার সাথে শীতের প্রকোপ বৃদ্ধি পেয়েছে । সদর হাসপাতালের জরুরী বিভাগের চিকিৎসক জানান, আক্রান্ত শিশুদের প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে তবে কেউ মারা যায়নি ।

সদর হাসপাতাল শিশু বিভাগে কর্মরত সেবিকা লাল মতি জানান, শিশু ওয়ার্ডে বর্তমানে অধিকাংশ ডায়রিয়া ও শ্বাসকষ্টে আক্রান্ত। চাহিদার তুলনায় কমসংখ্যক ডাক্তার ও নার্স কাজ করায় তারা শিশুদের প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দিতে পারছেন না। শীতের কারণে শিশুরা এ রোগে বেশি আক্রান্ত হচ্ছে।

নাসিমা বেগম নামে শিশু রোগীদের এক অভিভাবক জানান, স্থান সংকুলান না হওয়ায় শিশু ওয়ার্ডের বারান্দায় ও মেঝেতে বসে তাদের শিশুসন্তানদের চিকিৎসা করাতে বাধ্য হচ্ছেন।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.

December ২০২২
Mon Tue Wed Thu Fri Sat Sun
« Nov    
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১  

ফেসবুকে আমরা

বিভাগ

দিনপঞ্জিকা

December ২০২২
Mon Tue Wed Thu Fri Sat Sun
« Nov    
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১  
%d bloggers like this: