আজকের পত্রিকাtitle_li=মহম্মদপুর মহম্মদপুরের মানচিত্র থেকে হারিয়ে যাচ্ছে ৪টি গ্রাম

মহম্মদপুরের মানচিত্র থেকে হারিয়ে যাচ্ছে ৪টি গ্রাম

মাগুরানিউজ.কমঃ 

images (13)উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢল ও গত কয়েকদিনের টানা বর্ষণে মধুমতি নদীর পানি অস্বাভাবিক ভাবে বৃদ্ধি পাওয়ায় নদী ভাঙনের তীব্রতা ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে। ফলে মহম্মদপুর উপজেলার মানচিত্র থেকে ক্রমাগত হারিয়ে যাচ্ছে উপজেলার কাশীপুর, রায়পুর, রুইজানি ও ভোলানাথপুর গ্রাম। শনিবার থেকে এ প্রর্যন্তু নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে ২৫ টি পরিবারে শতাধিক ঘরবাড়ি।

ভাঙনের মুখে রয়েছে শতাধিক পরিবার, বন্যা নিয়ন্ত্রন বেঁড়িবাধ, কাশীপুর গোরস্থান, কাশিপুর মসজিদ, ভোলানাথপুরের ২টি পূজা মন্দির, অসংখ্য দোকান-পাটসহ হাজার হাজার একর ফসলী জমি। দীর্ঘ চার দশকেরও বেশী সময় ধরে মধুমতি নদীর অব্যাহত ভাঙনে বদলে যাচ্ছে মাগুরা জেলার মহম্মদপুর উপজেলার মানচিত্র। এ পর্যন্ত উপজেলার ৪ টি ইউনিয়নের ২০ টি গ্রামের ৩-৪ কিঃমিঃ এলাকা নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। কিন্তু নদী তীরবর্তী এলাকার অসংখ্য এলাকাবাসীর হাজারো মিনতি থাকা সত্বেও সংশ্লিষ্ঠ কতৃপক্ষ নদী ভাঙনরোধে সরকার কার্যকরী কোন ভূমিকা রাখছে না বলে এলাকাবাসীর অভিযোগ।

উপজেলার পূর্বপাশ প্রবাহিত প্রমত্তা মধুমতি নদী লোকালায়ে সর্ব প্রথম আঘাত হানে ১৯৬৮ সালের দিকে। নদী তীরবর্তী উপজেলার দক্ষিন সীমান্ত কালীশংকরপুর থেকে উত্তর সীমান্তের চরসেলামতপুর পর্যন্ত প্রায় ২০ টি গ্রামে শুরু হয় ভয়াবহ নদী ভাঙন। সেই থেকে প্রতি বছরই নতুন নতুন বসতভিটা ও ফসলি জমি নদী গর্ভে বিলীন হয়ে যাচ্ছে। বর্তমানে নদীতে পানি বৃদ্ধির কারনে ভাঙন ভয়াল আকার ধারণ করায় নদী তীরবর্তী বসবাস কারী মানুষের মধ্যে বিরাজ করছে চরম আতংক। উপজেলার কাশিপুর, ভোলানাথপুর, রায়পুর ও রুইজানি নদী তীরবর্তী এসব এলাকার ভাঙনকবলিত অধিবাসীদের এখন দিন কাটছে চরম আতংকে। এসব গ্রামের মসজিদ, মন্দির, ইদগাহসহ হাজার হাজার একর ফসলি জমি ও বসতবাড়ি এবছর বেশী ভাঙনের কবলে পড়েছে।

এ ব্যাপারে কাশিপুর গ্রামের বাসিন্দা বীর মুক্তিযোদ্ধা ডাঃ তিলাম হোসেন বলেন, নদী ভাঙ্গনের ফলে আমরা নিঃশ্ব হয়ে পড়েছি। এ গ্রামের অসংখ্য ঘর-বাড়ি, ফসলি জমি ও গাছ পালা প্রতি নিয়ত নদী গর্ভে বিলীন হচ্ছে। এ বছরও নদীতে পানি বাড়ার সাথে সাথে ভাঙ্গন শুরু হয়েছে। নদী ভাঙন রোধে জরুরী ভাবে আমরা নদী বাধ নির্মানের জন্য সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষের আশু দৃষ্টি আকর্শন করছি।

সরজমিন পরিদর্শনে দেখা গেছে, মধুমতি নদীর বয়াবহ ভাঙনে কাশীপুর গ্রামের মাজেদ মোল্লা, ওহাব মিয়া, আবু মিয়া, সাবু মিয়া, মাজেদ মেম্বর, বাচ্চু মিয়া, হাসেম মোল্লা, মতিয়ার মিয়া, আবজাল হোসেন এবং ভোলানাথপুর গ্রামের ২টি পূজা মন্দির সহ খিতিশ চৌধরী ও মনিমোহন চৌধরীর বাড়ি অন্যত্র সরিয়ে নিয়ে গেছে। ৪ গ্রামের ভাঙনের সম্মুখ দ্বারে জীবনের ঝুকি নিয়ে বসবাস করছেন, অমল বিশ্বাস, তারাপদ চৌধরী, রতন চৌধরী, পিরো চৌধরী, হানিফ মোল্লা, অলিয়ার, নওশের, মান্নান, নজির, মন্নু, নান্নু, জাফর, সাদেক মোল্লা, মোসলেম, মিজানুর, আলম, বাকী, ওহাব, আয়েন উদ্দিন, জয়েন উদ্দিন, রোকন উদ্দিন, আক্কাস মোল্লা, চুন্নু মোল্লা, আনোয়ারুল হক, সবুর মিয়া সহ শতাধিক পরিবারের অসংখ্য ঘরবাড়ি।

অব্যাহত নদী ভাঙন যে কোন সময় আঘাত হানতে পারে মধুমতি নদীর বন্যা নিয়ন্ত্রণ বেড়ি বাঁধ ও উপজেলার সর্ব বৃহৎ কাশিপুর গোরস্থান। অন্যদিকে গোপালনগর থেকে পাল্লা পর্যন্ত প্রায় ৫ কিঃমিঃ নদীর মাঝ বরাবর জেঁগে উঠেছে বিশাল চর। চরের কারণে স্রোতপ্রবাহ বাধাগ্রস্থ হয়ে প্রবল বেগে নদী তীরে ঢেউ আঁচড়ে পড়ায় নদীর ভাঙন বৃদ্ধি পাচ্ছে এবং উপজেলার নদী তীরবর্তী গ্রাম গুলো ক্রমেই ভাঙনের থাবায় নিশ্চিহ্ন হচ্ছে।

এ ব্যাপারে মহম্মদপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ কামরুল হাসান বলেন, আমি ভাঙন কবলিত এলাকা পরিদর্শন করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করেছি। মাগুরা পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বহী প্রকৌশলী গৌরপদ সূত্রধর জানান, ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। ইতিমধ্যে পানি সম্পদ মন্ত্রনালয়ের অধিনস্থ জলবায়ু ট্রাষ্ট নামক একটি বিদেশী প্রকল্পের কাছে ক্ষয়ক্ষতির বিবরন নির্ধারন পূর্বক একটি প্রজেক্টের আবেদন পাঠানোর পর বরাদ্দ পাওয়া গেছে। শীঘ্রই কাজ শুরু হবে।

গন প্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের যুব ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী স্থানীয় সংসদ সদস্য এড. বীরেন শিকদার বলেন, গতবছর আমিসহ পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছিলাম। নদী ভাঙন রোধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য ২৬ কোটি টাকার প্রকল্প দাখিল করা হয়েছে। ইতিমধ্যেই ৪ কোটি টাকার বরাদ্দ পাওয়া গেছে। বর্ষা মৌসুম শেষ হলেই কাজ শুরু হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

সেপ্টেম্বর ২০১৮
সোম মঙ্গল বুধ বৃহঃ শুক্র শনি রবি
« আগ    
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০

মাগুড়া সদর

ফেসবুকে আমরা

বিভাগ

দিনপঞ্জিকা

সেপ্টেম্বর ২০১৮
সোম মঙ্গল বুধ বৃহঃ শুক্র শনি রবি
« আগ    
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০

রাজনীতি

অর্থনীতি