স্বাস্থ্য বেশি মাছ-মাংস ধূমপানের মতোই ক্ষতিকর

বেশি মাছ-মাংস ধূমপানের মতোই ক্ষতিকর

অতিরিক্ত মাত্রার প্রাণিজ প্রোটিন সিগারেটের মতোই ক্ষতিকর৷ যদিও সবার জন্য নয়৷ এই সাবধানবাণী প্রযোজ্য পঞ্চাশোধর্ব পুরুষ এবং মহিলাদের ক্ষেত্রেই৷ আমেরিকার ইউনিভার্সিটি140514-health-smook অফ সাউদার্ন ক্যালিফোর্নিয়ার একদল গবেষক-অধ্যাপক

সম্প্রতি এই তথ্যটি প্রকাশ করেছেন৷ গবেষণা চলছিল বহুদিন ধরেই৷ মার্কিন মুলুকের এক লক্ষেরও বেশি পঞ্চাশোধর্ব পুরুষ-মহিলাকে নিয়ে সমীক্ষাটি চালিয়েছিলেন তারা৷ শুধু আমেরিকাতেই নয়, লন্ডন, ফ্রান্স-সহ অন্য কয়েকটি দেশেও সমীক্ষাটি করা হয়েছিল৷

তা থেকে জানা গিয়েছে, পঞ্চাশ থেকে ষাট–এই বয়ঃক্রমের মধ্যে প্রাণিজ প্রোটিন বেশি খেলে তা থেকে শরীরে নানা ধরনের বিষক্রিয়া তৈরি হতে পারে৷ তাই ওই বয়সে মুরগির মাংস, পাঁঠার মাংস, ডিম, মাছ, চিজ এসব যতটা সম্ভব কম খেতে পারলে ভাল৷ গবেষক এবং চিকিৎসকদেরও দাবি, লাগাতার ধূমপান করলে শরীরের একাধিক অঙ্গপ্রত্যঙ্গ যেভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়, তার সমতুল্য ক্ষতিসাধন করতে পারে এই অতি মাত্রার প্রাণিজ প্রোটিন৷

তাহলে, কী খাবেন? নানা ধরনের ডাল, খাদ্যশস্য, কলাই জাতীয় খাবার৷ সঙ্গে প্রচুর শাকসবজি৷ আর অবশ্যই ফল৷ তবে সবজি এবং ফলের কিছুটা বাছবিচার করা উচিত৷ যেসব সবজি খেলে ইউরিক অ্যাসিড বাড়তে পারে, কিংবা যেসমস্ত সুমিষ্ট ফল সুগার বাড়াতে পারে, সেগুলি অবশ্যই এড়িয়ে চলা উচিত৷

তবে ভেঙে পড়ার কোনো কারণ নেই৷ কেন না, মাঝের দশ পনেরোটা বছর একটু সংযম রক্ষা করতে পারলেই কেল্লা ফতে৷ ৬৫ বছরের পর আবার সব খাবার খেতে পারবেন নিশ্চিন্তে৷ ওই সময়টায় নাকি আবার শরীরে প্রাণিজ প্রোটিনের চাহিদা বেড়ে যায়৷- ওয়েবসাইট।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ডিসেম্বর ২০১৭
সোম মঙ্গল বুধ বৃহঃ শুক্র শনি রবি
« নভে    
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১

মাগুড়া সদর

ফেসবুকে আমরা

Pages